1. admin@dwiptv.com : dwiptv.com :
  2. dwiptvnews2121@gmail.com : sub editor : sub editor
সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৮:০৪ পূর্বাহ্ন

যশোর ভ্রাম‍্যমান আদালতের অভিযানে ৮৭ মামলা 

 উৎপল ঘোষ (ক্রাইম রিপোর্টার) যশোর
  • আপডেট: রবিবার, ৪ জুলাই, ২০২১
যশোর ভ্রাম‍্যমান আদালতের অভিযানে ৮৭ মামলা 
যশোর ভ্রাম‍্যমান আদালতের অভিযানে ৮৭ মামলা 
যশোর জেলায় করোনা ভাইরাস সংক্রমণের হার উর্ধ্বগতিতে একজন আক্রান্ত হওয়ার সাথে তা ছড়িয়ে পড়ছেপরিবারের সাথে অন‍্যদের সদস‍্যদের মাঝেও।এমন সংক্রমিত হার এখন আতঙ্ক সৃষ্টি করছে।স্বাস্থ‍্য বিভাগ এ জন‍্য জনসমাগমকে দায়ী করছে।অপরদিকে আক্রান্তের হার বৃদ্ধিতেও চিকিৎসক ও সেবিকার সংকট নিয়ে বর্তমানে শংকিত যশোর ২৫০শয‍্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের তত্বাবধায়ক।
লকডাউনের সময় বৃদ্ধির সাথে সাথে ভ্রাম্যমাণ আদালতে মামলা ও জরিমানার সংখ্যা  বেড়ে যাচ্ছে। সংশ্লিষ্টরা বলছেন বিনা কারণে কিছু মানুষ বাইরে চলে আসছেন। যার জন্যে তাদের আইনের আওতায় নিতেই মামলার সংখ্যা বাড়ছে। শুক্রবার ৫৪টি মামলার বিপরীতে ৩২ হাজার টাকা জরিমানা হলেও তা বেড়ে শনিবার এসে দাঁড়িয়েছে প্রায় তিনগুণ। শনিবার যশোর শহর ও বিভিন্ন উপজেলায় দোকান খুলে রাখা, মাস্ক ব্যবহার না করায় ৮৭টি মামলা ও ৭৬ হাজার ৮শ’ টাকা জরিমানা আদায় করেছের ভ্রাম্যমাণ আদালত।
এদিন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কেএম মামুনুর রশিদ পরিচালিত আদালতে ১টি মামলা ও ৫শ’ টাকা জরিমানা করেন। তিনি বেজপাড়া, আরএন রোড, রেলরোড ও হুসতলা এলাকায় অভিযান চালান। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কাজী আতিকুর রহমান মণিরামপুর উপজেলায় ৬টি মামলা ও ১০ হাজার ৫শ টাকা জরিমানা করেন।
চৌরাস্তা, দড়াটানা, মুজিবসড়ক, জর্জ কোট এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মেহরাজ শারবীন। তিনি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খুলে রাখা ও মাস্ক না ব্যবহার করার অপরাধে ১০টি মামলা ও ১২ হাজার ৬শ’ টাকা জরিমানা করেন।
দড়াটানা, পুনাক মার্কেটসহ বেশ কয়েকটি স্থানে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান। তিনি এসময় ১৯টি মামলা ও ১১ হাজার ৩শ’ টাকা জরিমানা করেন।
নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নাদির হোসেন শামীম জজ কোর্ট, পুনাক মার্কেট, রেলবাজার, চাঁচড়া, রেলরোড এলাকায় অভিযান চালিয়ে ২টি মামলা ও ১শ’ ৫০ টাকা জরিমানা আদায় করেন। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হাফিজুল হক বঙ্গবাজারের অভিযান চালিয়ে ৭টি মামলা ও ৮ হাজার তিনশ’ টাকা জরিমানা আদায় করেন।
করোনা সংক্রমণ রোধে জেলা প্রশাসনের প্রত্যাহিক কাজের সিডিউল অনুযায়ী অভিযান পরিচালনা করেন তারা। এ সময় অনেক মানুষের মাঝে সচেতনতামূলক কাজও করেন।
এদিকে, একই ইস্যুতে ঝিকরগাছাতে ৫টি মামলা ও এক হাজার ৭শ’ টাকা, শার্শায় ২টি মামলা ও ৫শ’ টাকা, কেশবপুরে ১৫ হাজার টাকা ও ১৯টি মামলা, অভয়নগরে ১০টি মামলা ও ৭ হাজার ৫শ’ টাকা এবং বাঘারপাড়াতে ২টি মামলা ও ২ হাজার টাকা এবং চৌগাছায় ১টি ও ৫শ’ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

আমাদের এন্ড্রয়েড এপস আপনার মোবাইলে ইন্সটল করুন।

Developer By Zorex Zira