1. admin@dwiptv.com : dwiptv.com :
  2. dwiptvnews2121@gmail.com : sub editor : sub editor
সোমবার, ১০ মে ২০২১, ০৭:৪১ পূর্বাহ্ন

বান্দরবানে সিডিসি-এর উদ্যোগে শিশুদের মধ্যে ফুডরেশন ও স্বাস্থ্য সামগ্রী বিতরন

 মোহাম্মদ আলী, বান্দরবান জেলা প্রতিনিধি
  • আপডেট: মঙ্গলবার, ১৩ এপ্রিল, ২০২১
বান্দরবানে সিডিসি-এর উদ্যোগে শিশুদের মধ্যে ফুডরেশন ও স্বাস্থ্য সামগ্রী বিতরন
বান্দরবানে সিডিসি-এর উদ্যোগে শিশুদের মধ্যে ফুডরেশন ও স্বাস্থ্য সামগ্রী বিতরন

পার্বত্য জেলা শিশু উন্নয়ন প্রকল্প-বান্দরবান কমিউনিটি ডেভাল্পমেন্ট কনর্সান (সিডিসি) এর উদ্যোগে নিবন্ধীত শিশুদের মধ্যে ফুডরেশন ও স্বাস্থ্য সামগ্রী বিতরন করা হয়েছে। রোববার ১১ এপ্রিল বান্দরবান সদরের উজানীপাড়ায় পার্বত্য জেলা শিশু উন্নয়ন প্রকল্প-বান্দরবান অফিস এর প্রাঙ্গনে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করে নিবন্ধীত শিশুদের মধ্যে এই ফুড রেশন ও স্বাস্থ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়।

 

ফুডরেশন ও স্বাস্থ্য সামগ্রী বিতরণকালে এসময় উপস্থিত ছিলেন বান্দরবান পৌরসভার নব-নির্বাচিত ৩নং প্যানেল মেয়র ও ৫নং ওয়াডের্র কাউন্সিলর মংমং সিং মারমা, পার্বত্য জেলা শিশু উন্নয়ন প্রকল্প এর সভাপতি পাকসিম বিতরণ প্রকল্প ব্যবস্থাপক লারিন সাং বম (লালরিন), সদস্য থিমখুব বুইতিং,সদস্য মংহাসিং মারমাসহ বান্দরবানের বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকক্ট্রনিক মিডিয়ার সংবাদকর্মী ও প্রকল্পের কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং নিবন্ধীত শিশু ও তাদের পরিবারের সদস্যরা।

 

ফুডরেশন ও স্বাস্থ্য সামগ্রী গ্রহণকারী শিশুর অভিভাবক বিউটি সুত্রধর বলেন,শিশু উন্নয়ন প্রকল্প-বান্দরবান কেন্দ্রে থেকে ক্রান্তিকাল (কোভিট-১৯) শুরু হওয়ার পর থেকে আমাদেরকে ত্রান,স্বাস্থ্য সামগ্রী, অন্যন্য সামগ্রী দিয়ে যেভাবে সাহায্যে সহযোগিতা দিচ্ছে তা অকল্পনীয়। করোনার এই মহামারীতে আমরা পার্বত্য জেলা শিশু উন্নয়ন প্রকল্প-বান্দরবান কমিউনিটি ডেভাল্পমেন্ট কনর্সান (সিডিসি) এর পক্ষ থেকে বিভিন্ন ত্রাণ সহায়তা পেয়ে যাচ্ছি যা আমাদের বিপদে অনেক কাজে আসছে।

 

পার্বত্য জেলা শিশু উন্নয়ন প্রকল্পের প্রকল্প ব্যবস্থাপক লালরিন বম বলেন, গত বছরের মার্চ মাসে দেশে করোনা মহামারি শুরু হওয়ার পর থেকে অদ্যবধি পর্যন্ত পার্বত্য জেলা শিশু উন্নয়ন প্রকল্প-বান্দরবান কমিউনিটি ডেভাল্পমেন্ট কনর্সান (সিডিসি) এর উদ্যোগে নিবন্ধীত শিশুদের মধ্যে ফুডরেশন ও স্বাস্থ্য সামগ্রী বিতরণ করা অব্যাহত রয়েছে।

 

এ কার্যক্রমটির মাধ্যমে প্রতিমাসে ফুড রেশন ও স্বাস্থ্য সামগ্রী বিতরণ অব্যহত রয়েছে এবং পাশাপাশি অভিভাবক ও শিশুদেরকে কোভিট-১৯ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা, শিশু নির্যাতন বন্ধ করা এবং বিদ্যালয় বন্ধ থাকলেও রীতিমত বাড়িতে পড়াশুনা চালিয়ে যাবার জন্য নানা ধরণের পরামর্শ প্রদান করা হচ্ছে। এ সময় প্রকল্পের নিবন্ধীত ৩০৬জন শিশুর পরিবারকে সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে ১০কেজি চাউল, ১ কেজি মশুর ডাল, ১ লিটার সয়াবিন তেল, ৪টি সাবান ও ৫টি করে মাস্ক প্রদান করা হয়।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

আমাদের এন্ড্রয়েড এপস আপনার মোবাইলে ইন্সটল করুন।

Developer By Zorex Zira