1. admin@dwiptv.com : dwiptv.com :
  2. dwiptvnews2121@gmail.com : sub editor : sub editor
রবিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২১, ০৩:০৪ পূর্বাহ্ন

নাচোলে সরকারি ঘর দেওয়ার নামে গরীবের টাকা হাতিয়ে নিল সাংবাদিক বাবু

মোঃ মিজানুর রহমান (চাঁপাইনবাবগঞ্জ,জেলা প্রতিনিধি)
  • আপডেট: বৃহস্পতিবার, ৮ এপ্রিল, ২০২১
নাচোলে সরকারি ঘর দেওয়ার নামে গরীবের টাকা হাতিয়ে নিল সাংবাদিক বাবু
নাচোলে সরকারি ঘর দেওয়ার নামে গরীবের টাকা হাতিয়ে নিল সাংবাদিক বাবু

পকেটে ৪/৫ টি সাংবাদিক কার্ড, চোখে আবার কালো চশমা আর মোটর সাইকেলে প্রেস লিখে দাপিয়ে বেড়াচ্ছে নাচোলের বিভিন্ন প্রান্তে সাংবাদিক বাবু নামের এই ব্যাক্তি! নাচোল উপজেলা হাসপাতালের সামনে গড়ে তুলেছেন দৈনিক নব অভিযান নামে একটি অফিস।সেই থেকে সাধারণ মানুষদের রক্ত চোষতে অভিযান চালায় শহর কিংবা গ্রামে।লেখা পড়ায় ৫ম শ্রেণী পাশ কিনা তা কেউ জানে না।কালো চশমা পরা এই বাবু কখনও ওঝা-কবিরাজ, কখনও রাজমিন্ত্রী, কখনও নেতা, আবার কখনও সাংবাদিক ! কালো চশমা পরা এই বাবু হচ্ছে নাচোল পৌরসভা এলাকার ইসলামপুর গ্রামের বাহার আলীর ছেলে জাহাঙ্গীর আলম বাবু। তবে এলাকার লোক তাকে পেশায় সর্পরাজ, কবিরাজ, রাজমিন্ত্রী বলেই জানেন।

 

রাজমিস্ত্রী এই বাবুকে নাচোলের কোন সাংবাদিক সংগঠন “সদস্য” হিসেবে গ্রহন না করলেও, এক কথিত সাংবাদিক ও বিএনপি নেতার মদদেই সকল কার্যক্রম পরিচালিত করে এই বাবু।অন্য সাংবাদিকের রিপোর্ট কপি করেই তিনি নাকি বিরাট সাংবাদিক। ভুক্তভোগিদের অভিযোগ সুত্রে জানাগেছে,গত ১০মাস পূর্বে ইউএনও,এসিল্যান্ড এর নাম করে সাত জনের কাছে থেকে সরকারি ঘরবাড়ি দিবো বলে ২০হাজার টাকা করে সর্বমোট ১লক্ষ ৪০হাজার টাকা গ্রহন করে কথিত সাংবাদিক বাবু। টাকা নেওয়ার পর থেকে সে আমাদের কোন ফোন ধরছেন না।পরবর্তীতে আমরা বাবুর সাথে দেখা করলে সে ওসি, এসপি,ডিসি,এমপির ভয় দেখিয়ে আমাদের ভয়ভীতি দেখায়। কথিত সাংবাদিক জাহাঙ্গীর আলম বাবু আমাদের সাথে প্রতারনা করেছেন। আমরা সরকারের কাছে নায্য বিচার দাবি করছি।

 

নাচোল উপজেলার আঝইর গ্রামের ভুক্তভোগি জেনারুল ইসলামের প্রতিবন্ধী মেয়ে রেবিনা,একই এলাকার আমেনা,ফাতেমা জানান-গত বছরের চৈত্র মাসে আমাকে সরকারি ঘর দিবে বলে আমার কাছে থেকে জাহাঙ্গীর আলম বাবু ২০হাজার টাকা নেয়। আমি প্রতিবন্ধী মেয়ে।অনেক কষ্ট করে বাবু কে টাকা দিই। পরে সরকারি ঘরবাড়ি না পেয়ে বাবুর কাছে টাকা ফেরত চাইতে গেলে বাবু আমাকে বলে ওসি, এসপি,ডিসি,এমপি আমাকে দেখে ভয় পায়। টাকা দিবোনা যা পারিস তা কর। অবশেষে আমরা গত ২ মাস পূর্বে দুপুরে বাবুর শাস্তি চেয়ে বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ করি।কিন্তু এখনও আমরা কোনরকম প্রশাসনের সহযোগিতা পাইনি বলে জানান। ভুক্তভোগিদের দাবি প্রতারক এই জাহাঙ্গীর আলম বাবু কে আইনের আওতায় এনে নায্য বিচার দাবি করছি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

আমাদের এন্ড্রয়েড এপস আপনার মোবাইলে ইন্সটল করুন।

Developer By Zorex Zira