1. admin@dwiptv.com : dwiptv.com :
  2. dwiptvnews2121@gmail.com : sub editor : sub editor
বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ০৭:৪৬ অপরাহ্ন

চট্টগ্রাম মহিলা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট শাখার নেতৃত্বে ৪র্থ  দফায় বিক্ষোভ মিছিল কর্মসূচি পালিত

রিপোর্টারের নাম:
  • আপডেট: মঙ্গলবার, ৩০ আগস্ট, ২০২২
চট্টগ্রাম মহিলা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট শাখার নেতৃত্বে ৪র্থ  দফায় বিক্ষোভ মিছিল কর্মসূচি পালিত
চট্টগ্রাম মহিলা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট শাখার নেতৃত্বে ৪র্থ  দফায় বিক্ষোভ মিছিল কর্মসূচি পালিত

ডাঃ দিপু মনি কর্তৃক ৪ বছর মেয়াদি ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং শিক্ষা কোর্সকে ৩ বছরে রূপান্তরের মন্তব্যে আজ ৩০ আগস্ট ২০২২ খ্রি. বেলা ১২.৩০ ঘটিকায় বাংলাদেশ কারিগরি ছাত্র পরিষদ (বাকাছাপ) চট্টগ্রাম মহিলা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট শাখার নেতৃত্বে ৪র্থ  দফায় বিক্ষোভ মিছিল কর্মসূচি পালিত হয়।

উক্ত প্রতিবাদ সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম জেলা বাকাছাপ এর সভাপতি ইয়াছিন আরাফাত বাপ্পি , সাধারণ সম্পাদক কাম্বার হোসেন রকি, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক শাহারিয়ার, অত্র ইন্সটিটিউটের শিক্ষক পলিটেকনিক আইডিইবি’র সভাপতি মোঃ আবু বক্কর সিদ্দিক, অতিথি শিক্ষক মাে: ইব্রাহীম, বাংলাদেশ কারিগরি ছাত্র পরিষদ (বাকাছাপ) চ.ম.প.ই শাখার সভাপতি শারমিন আক্তার সীমা, সাধারণ সম্পাদক শাহাজাদী ফাতেমাতুর জোহরা সহ অনন্যা নেতৃবৃন্দ এবং অত্র ইন্সটিটিউটের শতাধিক শিক্ষার্থী এসময় বিক্ষোভ মিছিলে যোগদান করেন ।

***চট্টগ্রাম জেলা বাকাছাপ এর সভাপতি ইয়াছিন আরাফাত বাপ্পি জানান, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যেখানে কারিগরি সেক্টর উন্নত করার জন্য কাজ করে যাচ্ছেন সেখানে মাননীয় শিক্ষামন্ত্রীর ঘোষিত ৪বছর মেয়াদি ডিপ্লোমা ইন ইঞ্জিনিয়ারিং কোর্স কে ৩ বছরে কেন নিতে চাচ্ছেন? মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বলেছেন শতকরা ২৫ ভাগ কাজ ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার করে থাকে বাংলাদেশ কে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন ডিপ্লোমা প্রকৌশলীগণ। সেখানে ৩বছর করলে বাংলাদেশ কে পিছিয়ে নেওয়া হবে।

***বাংলাদেশ কারিগরি ছাত্র পরিষদ (বাকাছাপ) চমপই শাখার সভাপতি শারমিন আক্তার সীমা জানান, ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং শিক্ষা কোর্সকে আন্তর্জাতিক মানে সমুন্নত করতে দীর্ঘ পরীক্ষা-নিরীক্ষা ও গবেষণার সুপারিশ অনুসারে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার কর্তৃক গৃহীত ১৯৯৮ সালের সিদ্ধান্তে ২০০০ শিক্ষাবর্ষ থেকে ৪ বছরে উন্নীত করা হয়।  ঠিক একই সময়ে ২ বছরের ডিগ্রী পাসকোর্সকে ৩ বছরে এবং ৩ বছরের স্নাতককোর্সকে ৪ বছরে উন্নীত করা হয়। কিন্তু মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী সরকারী অর্থ ব্যয় ও পরিবারের উপর আর্থিক চাপের কথা বলে কোন ধরনের বিচার বিশ্লেষণ ছাড়াই ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং শিক্ষা কোর্সের মেয়াদ কেনো ৩ বছরে নামিয়ে আনতে চাচ্ছেন?

তিনি আরও বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার ভিশন’৪১ ও ৪র্থ শিল্প বিপ্লব মোকাবেলায় কারিগরি দক্ষলোকবল প্রস্তুতিতে ৪ বছর মেয়াদি ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং শিক্ষা কোর্সকে আরো আধুনিক ও আন্তর্জাতিক মানের উন্নীত করুন এবং
আধুনিক ল্যাব-ওয়ার্কশপ, যন্ত্রপাতি সহ প্রশিক্ষিত, দক্ষ ও অভিজ্ঞ প্রশিক্ষক নিয়োগ দিন । যেখানে আমাদের ৪ বছরের ৫৬টা বই শেষ করতে হিমশিম খেতে হয় সেখানে ৩ বছরের কিভাবে সম্ভব? শিক্ষা মন্ত্রী কোন ধরনের বিচার বিশ্লেষণ ছাড়া এমন আত্মঘাতী সিদ্ধান্ত নিতে পারেন না আমরা তার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানায় একই সাথে আমরা চাই ৪ বছর ডিপ্লোমা ইন ইঞ্জিনিয়ারিং কোর্স বহাল থাকুক।

***সহ-সভাপতি ইসমিতা জাহান জানান, ৪ বছরের ডিপ্লোমা কে ৩ বছর করা একটা অযৌক্তিক সিদ্ধান্ত। করোনার ক্ষতি পুষাবার জন্য আমাদের ৬ মাসের সেমিস্টার ৪মাস করা হয় এই সময়ে আমরা হিমশিম খাচ্ছি থিওরি শিখতে সেখানে আমরা ব্যবহারিক কিভাবে শিখবো? তার মধ্যে আমাদের শিক্ষক সল্পতা, ল্যাব সল্পতা যেখানে কারিগরি শিক্ষা মানেই হাতে কলমে শিক্ষা সেখানে আমরা হাতে কলমে শিখতে পারছি না। ডিপ্লোমা কে ৪ বছর থেকে ৩ বছর করে দিলে ব্যবহারিক কাজ শিখতে না পারলে আমরা দক্ষ প্রকৌশলী কিভাবে হবো?

***বাকাছাপ এর সাধারণ সম্পাদক শাহাজাদী ফাতেমাতুর জোহরা জানান, বর্তমানে ডিপ্লোমা শিক্ষাব্যবস্থা ৪বছর থাকা অবস্থাতেই আমরা যথেষ্ট বৈষম্যের শিকার হচ্ছি বিভিন্ন ক্ষেত্রে।

সেক্ষেত্রে যদি ডিপ্লোমাকে ৪বছর থেকে ৩বছরে রূপান্তর করা হয়েই যায় তাহলে আমাদের অস্তিত্ব তো বিলীন হয়ে যাবে।
তাছাড়া আপনারা খেয়াল করে দেখবেন বর্তমানেই বাংলাদেশে বিভিন্ন চাকরি ক্ষেত্রে ডিপ্লোমা প্রকৌশলীদেরকে নিয়োগ দেওয়া হচ্ছে বিভিন্ন নিম্ন পদস্থ পদ সমূহে। যেখানে তাদেরকে নিয়োগ দেওয়া উচিত ছিলো একজন উপ-সহকারী প্রকৌশলী হিসেবে।

যদি ডিপ্লোমা শিক্ষাব্যবস্থাকে ৪ বছর থেকে ৩ বছরে রূপান্তরের অফিসিয়াল সিদ্ধান্ত চলে আসে তাহলে আমরা এই রাজপথ ছাড়ছি না। আমরা ক্লাস, পরীক্ষা কোনো কিছুতে আর অংশগ্রহণ করবো না।

***সাংগঠনিক সম্পাদক তামান্না রহমান জানান, আজকের এই আন্দোলন মূলত শিক্ষামন্ত্রীর একটা কথা যা আমাদের ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার দেরকে আন্দোলন এ নামিয়েছে।। তার এই অযোক্তিক নিদেশ যা হল ৩ বছরের ডিপ্লোমা করে দেয়ার চক্রান্ত তা আমরা মানি।৷ তার মতে আমাদের আথিক অবস্থা কথা ভেবে এমনটি করা৷৷ আমাদের পরিবার যদি আমাদের ৩ বছর পড়াশোনা করাতে পারে তাহলে আমাদের ৪ বছরও করাতে পারবে।।৷ তাই আমরা চাই  আমাদের দাবি গুলো মেনে ডিপ্লোমা শিক্ষাব্যবস্থাকে ৪ বছরে রাখা হোক।

***বাকাছাপ এর মহিলা বিষয়ক সম্পাদক সাবিহা তাবাসসুম জানান, শিক্ষামন্ত্রী দিপু মনি বক্তব্যে বলেছে ৪ বছরের ডিপ্লোমার দরকার নেই ৩ বছরেই সেটা শেষ করা যাবে তা অযৌক্তিক। এর চেয়ে ডিপ্লোমা কে ইংরেজি তে এবং ৫ বছর করা হক সেটি আরো ভালো৷ কেননা ডিপ্লোমা তে ইংরেজি যে সিলেবাস সেটি ক্লাস ৯ কিংবা ১০ এর চেয়ে বহুগুন কম। ডিপ্লোমারা যখন বিএসসি করতে যায় তখন তাদের ইংরেজি তে সমস্যায় পড়তে হয়।

***বাকাছাপ এর নিবার্হী সদস্য তানিয়া আক্তার তানি জানান, এই আন্দোলন বাংলাদেশের সব পলিটেকনিকেই হচ্ছে কারন আমাকে সবার দাবি ৪ বছর ডিপ্লোমা ৩বছর মানবো না। ৪বছর ডিপ্লোমা ৩বছর হলে আমাদের টেকনিশিয়ান হিসেবে ধরা হবে যা আমরা চাই না,আমরা ডিপ্লোমা ইন্জিনিয়ার হয় প্রাধান্য পেতে চাই।যেখানে প্রধান মন্রী বলেছেন দেশ উন্নয়নে ৮০% ই অবদান আমাদের ডিপ্লোমা ইন্জিনিয়ারিংএ সেখানে এই ৪বছরকে ৩বছর করে আমাদের নিচের পদে নামাবেন না।

অত্র ইন্সটিটিউটের শিক্ষার্থী রিযা জানান, আমরা এখানে মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী ডিপ্লোমা কে ৪ বছর থেকে তিন বছর করার যে ঘোষণা দিয়েছে, যা আমাদের জন্য আত্মঘাতী, সেই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আমরা সাধারণ শিক্ষার্থীদ একত্রিত হয়ে তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

এসময় বাকাছাপ নেতৃবৃন্দ সহ সকল শিক্ষার্থীবৃন্দ একযোগে “তিন বছরের ডিপ্লোমা মানি না মানবো না” স্লোগানে প্রতিবাদ জানান।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন

আমাদের এন্ড্রয়েড এপস আপনার মোবাইলে ইন্সটল করুন।

Developer By Zorex Zira